বেগম জিয়ার গাড়ি বহরে হামলাঃ ক্যালিফোর্ণিয়া বিএনপি’র তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ

October 28, 2017 11:10 PMViews: 6

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি)ক্যালিফোর্ণিয়া শাখার পক্ষ থেকে বিএনপি চেয়ারপারসনের গাড়িবহরে, গণমাধ্যমের গাড়িতে হামলা ও সাংবাদিকদেরকে শারীরিকভাবে আক্রমণসহ বিএনপি নেতাকর্মীদের ওপর হামলা চালিয়ে আহত করার কাপুরুষোচিত, বর্বর, ঘৃণ্য, পৈশাচিক, নির্দয় ও নিষ্ঠুর ঘটনার তীব্র নিন্দা, প্রতিবাদ ও ধিক্কার জানাচ্ছি। ক্যালিফোর্ণিয়া বিএনপির সভাপতি মোঃ আবদুল বাছিত বলেন, আওয়ামী লীগের যে সমস্ত গুন্ডা গণমাধ্যমের সাংবাদিকসহ বিএনপি নেতাকর্মীদের ওপর হামলা চালিয়ে আহত করেছে তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির জোর দাবি জানাচ্ছি। আহত সাংবাদিক বন্ধুরাসহ বিএনপি নেতাকর্মীরা যারা সন্ত্রাসীদের হামলায় আহত হয়েছেন তাদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানাচ্ছি এবং তাদের আশু সুস্থতা কামনা করছি।

মিয়ানমারে নিজেদের দেশ ও ঘরবাড়ি থেকে উচ্ছেদ হওয়া দুর্দশাগ্রস্ত ও অসহায় রোহিঙ্গাদেরকে ত্রাণ ও সাহায্য বিতরণের জন্য গতকাল সকালে নিজ বাসভবন থেকে বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া দলের নেতৃবৃন্দ সহকারে কক্সবাজারের উদ্দেশ্যে রওনা হন। কক্সবাজার জেলার উখিয়া ও টেকনাফে বিএনপি চেয়ারপারসনের এই সফরের উদ্দেশ্য সম্পূর্ণরূপে মানবিক সহায়তার জন্য। তাদের খাদ্য, চিকিৎসা ও জীবনধারণের জন্য যতটুকু সম্ভব প্রয়োজনীয় সামগ্রীসহ দলের পক্ষ থেকে তিনি ত্রাণ বিতরণ করবেন। কিন্তু ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের মানবতা ও মানুষের দুঃখ-বেদনাকে পরোয়া করে না। তারা প্রতিহিংসার গজকাঠি দিয়ে সবকিছু পরিমাপ করে। বাংলাদেশে আশ্রিত নিঃস্ব ও অবলম্বনহীন রোহিঙ্গাদের জন্য দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার ত্রাণ তৎপরতাকে তারা সহ্য করতে পারছে না। বেগম খালেদা জিয়ার বিপুল জনপ্রিয়তায় কান্ডজ্ঞান হারিয়ে ফেলে এখন ভোটারবিহীন সরকার জনগণের ওপর প্রতিশোধ নিতেই বরাবরের মতো রক্তাক্ত সন্ত্রাসকে অবলম্বন করে দেশনেত্রীর গাড়িবহরে বেপরোয়া হামলা চালিয়েছে। আওয়ামী লীগের মহৎ কৃতিত্ব হচ্ছে গণতন্ত্রকে বধ করে বিরোধী দলকে নিশ্চিহ্ন করতে নানা ধরনের নিষ্ঠুর-নির্দয় নির্যাতন করা।

ক্যালিফোর্ণিয়া বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক বদরুল আলম চৌধুরী শিপ্‌লু বলেছেন, বেগম জিয়ার আগমনে উচ্ছসিত জনতার ঢল দেখে আতঙ্কিত হয়ে বেগম খালেদা জিয়ার গাড়ি বহরে হামলা চালিয়েছে আওয়ামী সন্ত্রাসীরা। বিএনপি চেয়ারপারসনের গাড়িবহর ফেনি শহরে ঢোকার সময় আকস্মিকভাবে আওয়ামী সন্ত্রাসীরা বহরের ওপর হামলা চালিয়ে বিএনপির নেতাকর্মীসহ গণমাধ্যমের গাড়িতেও পৈশাচিক হামলা চালায়। এই হামলায় শুধুমাত্র ব্যাপক গাড়ি ভাঙচুরই হয়নি, গণমাধ্যমের অসংখ্য সাংবাদিক সন্ত্রাসীদের দ্বারা শারীরিকভাবে আঘাতপ্রাপ্ত হয়েছেন। বিএনপির অনেক নেতাকর্মীও আওয়ামী ক্যাডারদের বর্বরোচিত আক্রমণে আহত হয়েছেন। বিএনপি চেয়ারপারসনের গাড়িবহর এবং বিএনপি নেতাকর্মীদের গাড়িসহ গণমাধ্যমের ওপর এই আক্রমণ বর্তমানে গণতন্ত্রের সংকটকে আরো ঘনীভূত করলো এবং দেশ থেকে শান্তি, সহাবস্থান, স্থিতি ও পরমতসহিষ্ণুতা ফিরে আসার বদলে জুলুম-সন্ত্রাসের নানা ডাইমেনশনকেই স্বীকৃতি দেয়া হলো। সরকার তাদের অকল্পনীয় দানবীয় শক্তির জোরে বিরোধী দলশূন্য যে সমাজ-রাষ্ট্র সৃষ্টি করতে চাচ্ছে তা আবারো আজকের ঘটনার মধ্য দিয়ে সুস্পষ্ট হলো। সরকার স্বচ্ছ নির্বাচন, নির্বিঘ্নে ভোটাধিকার প্রয়োগ, বাক-স্বাধীনতাকে চিরতরে বন্দি করে রাখার জন্যই সন্ত্রাসের কাছে আত্মনিবেদন করেছে। বিএনপি চেয়ারপারসন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে অভ্যর্থনা জানাতে পথে পথে মানুষের যে সমুদ্র তৈরি হয়েছে এতেই ঈর্ষান্বিত হয়ে সরকারি দল মানসিক স্থৈর্য হারিয়ে দলীয় গুন্ডাদের লেলিয়ে দিয়ে চেয়ারপারসনের গাড়িবহরে হামলা চালিয়েছে।

Leave a Reply


*